বা ঙা ল না মা

Archive for the ‘বাঙালনামা সাময়িকী’ Category

বাঙালনামা ঃ দ্বিতীয় বর্ষ, তৃতীয় সংখ্যা

Posted by bangalnama on December 22, 2010



সূচীপত্র


সম্পাদকের কলম

দেশভাগের জার্নাল
পূর্ব পাকিস্তানের উদ্বাস্তু ঃ সংস্কৃতির সংঘাত – সরজিৎ মজুমদার
পূর্বপাকিস্তান থেকে উদ্বাস্তু হিসাবে এসে ভারতে পুনর্বাসনের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা – প্রভাস চন্দ্র মজুমদার
নবগঙ্গা থেকে আদিগঙ্গা, ভুঁইফোঁড়দের সুলুকসন্ধান – রবিদা (ধারাবাহিক)
বাঙালবৃত্তান্ত – রঞ্জন রায় (ধারাবাহিক)
জীবনের ডায়েরির পাতা থেকে – মানব সেন (ধারাবাহিক)

বই আলোচনা
দেশভাগের সাম্প্রতিক ইতিহাস চর্চার আলোকে ‘দ্যা মার্জিনাল মেন’ – ত্রিদিব সন্তপা কুন্ডু

বিশেষ নিবন্ধ : সিলেটের উদ্বাস্তুরা
Memories and Narratives: Intimate Glimpses of Partition of India – Anindita Dasgupta and Neeta Singh

নিবন্ধ
রিফিউজির ফুটবল ঃ এও এক বাঙালনামা – সুরজিৎ সেনগুপ্ত
অন্নদাশঙ্করের ছড়া ঃ জব্দিবে কে শব্দীকে? – অরণ্য লাহিড়ী

পশ্চিমবঙ্গে উদ্বাস্তু আন্দোলন ও পুনর্বাসন
পশ্চিমবঙ্গে অঞ্চলভিত্তিক জবরদখল (স্কোয়াটার্স) কলোনীর তালিকা
কুপার্স ক্যাম্প ঃ ‘বাংলার চম্বল’ থেকে শান্ত আবাস – শঙ্কর রায়

অপ্রকাশিত মরিচঝাঁপি
ইতিহাসে ‘মরিচঝাঁপি মামলা ১৯৭৯’ – সৌমেন গুহ
দন্ডকারণ্য, মরিচঝাঁপি ও আমার বিদ্যালয় – নির্মলেন্দু ঢালি

পূর্ববঙ্গের বাঙলা উপভাষা ও সাহিত্য
চান্দ্রদ্বীপের শোলোক শাস্তর ও পল্্কি কথা – মিহির সেনগুপ্ত (পুনঃপ্রকাশিত)
অসমিয়া ভাষা, সিলেটি উপভাষা, এবং অসমে ভাষাচর্চার রূপরেখা – সুশান্ত কর
সিলেট কাছাড়ের বাউল পরম্পরা – সঞ্জীব দেব লস্কর
একটি কাল্পনিক কথোপকথন : ময়মনসিংহের উপভাষায় – রঞ্জন রায়

তেভাগা আর্কাইভ – সংযোজন
তথ্যচিত্র ঃ ইলা মিত্র


______________
প্রচ্ছদ: মানালি রায়
ডিসেম্বর, ২০১০

Posted in বাঙালনামা সাময়িকী | 5 Comments »

সম্পাদকীয় – দ্বিতীয় বর্ষ, তৃতীয় সংখ্যা

Posted by bangalnama on December 22, 2010


জনঘনত্বের বিচারে (প্রতি বর্গকিমি ভূখণ্ডে মানুষের সংখ্যা) পৃথিবীর প্রথম দশটি শহরের লিস্ট যদি দেখি তার মধ্যে ছ’টি ভারতবর্ষে; না, সুধী পাঠক, কলকাতা সেই প্রথম দশে নেই, একটি দিল্লি আর বাকিগুলি যথাক্রমেঃ টিটাগড়, বরানগর, শ্রীরামপুর, দক্ষিণ দমদম, কামারহাটি। কলকাতার র‍্যাংকিং এদের পরেই, এগারোয়, আর এর পরে পশ্চিমবঙ্গের বাকি শহরগুলি আসতে থাকবেঃ বালি, বালুরঘাট, হাওড়া, নৈহাটি। গঙ্গার বদ্বীপের অসামান্য ঊর্বরতা, সুজলাসুফলা বাংলার জল-হাওয়া বা ব্রিটিশদের প্রথম বন্দররাজধানীর ঐতিহাসিক গুরুত্ব মাথায় রেখেও এই কৃষিবর্জিত বৃহৎশিল্পবিহীন জনপদগুলির বর্ধিষ্ণুতার সূত্রে একটা কারণই কি শুরুতেই মনে হচ্ছে না? এবার সমাজতাত্ত্বিক জার্নালগুলিতে ঢুঁ মারলে দেখব, ঠিক সেইটাই- ১৯৫০-এর আশেপাশের সময়ে ওপার বাংলা থেকে অসংখ্য উদ্বাস্তুর এপারে চলে আসা, নির্মাণ করে নেওয়া নিজেদের জীবন জীবিকা বসতি। চল্লিশের দশকের একদম গোড়ার থেকে শুরু হয় হোস্টাইল পূর্ববঙ্গ থেকে বর্ণহিন্দু মধ্যবিত্ত বাঙালির এপারে আসা। এঁদের সকলেই প্রায় শিক্ষিত, কর্মক্ষম, অস্থাবর সম্পত্তিও একদমই ছিল না এরকম নয়। ফলে নিজের ভিটেমাটি ছাড়তেই যখন হল, আশু গন্তব্য কলকাতা, আর তারপর প্রতিকূলতার সঙ্গে লড়াই- যে লড়াইয়ের মধ্যে আত্মপ্রতিষ্ঠার অভিপ্রায়ের সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিল ‘বাঙাল’ আইডেন্টিটির নির্মাণের লক্ষ্য। এঁদের সম্বন্ধে স্যার যদুনাথ সরকার বলেনঃ “Those who are leaving East Bengal are the very best portion of the local population, in brain, wealth, organizing capacity and indomitable spirit, however crushed and benumbed they may look, when they are unloaded from their third class wagons on the Sealdah station yard.”

বাকি অংশটি এখানে পডু়ন…

Posted in আমাদের কথা, বাঙালনামা সাময়িকী | 4 Comments »

বাঙালনামা ঃ দ্বিতীয় বর্ষ, দ্বিতীয় সংখ্যা

Posted by bangalnama on September 13, 2010



কৈফিয়ৎ

এই যে আমরা কথায় কথায়, কারণে অকারণে কলার তুলে বলে থাকি, ‘আ মরি বাংলা ভাষা’, আদতে পৃথিবী জুড়ে ২৩ কোটির মুখে মুখে ফেরা, তৃষ্ণার জল-মেটানো মহানদীটির প্রাণরসের যোগান দেয় যে অজস্র উপনদী আর ফিডার ক্যানাল, তার খবর কে রাখে! পুব ও পশ্চিম বাংলার জেলায়-জেলায় রয়েছে এই যোগানের উৎস। কথাটা মাথায় রেখে, ভবিষ্যতে ভাটিপুত্রদের নানান ব্লগ-বাখোয়াজির প্রতিশ্রুতি দিয়েই এই সংখ্যায় শুরু হল বাঙালনামার নতুন বিভাগ – পুববাংলার বাংলা উপভাষা। সিলেটি প্রসঙ্গে আলোচনা লিখতে বসে সঞ্জীব দেবলস্কর লিখেছেন, “মূল ভাষার সঙ্গে এ উপভাষার সম্পর্ক রাজা আর প্রজার সম্পর্ক নয়, সিলেটিতে বললে, জমিদার-রাইয়তের সম্পর্ক নয়, যদিও জমিদারি ব্যবস্থার মতো এখানেও রয়েছে খাজনা আদান প্রদানের প্রথা। রাইয়ত, অর্থাৎ প্রজা যেমন নিয়মিত খাজনা, সেটা নগদ পয়সাতেই হোক বা উৎপাদিত শস্যের বখরা, কিম্বা বেগার শ্রমদানের মাধ্যমেই হোক — তা দিয়ে জমিদারিকে টিঁকিয়ে রাখে, তেমনি উপভাষাও নিয়মিত শব্দ, পরিভাষার জোগান, পদ এবং পদান্তর, নিত্য নতুন প্রকাশ ভঙ্গি, প্রবাদ প্রবচন এসবের মাধ্যমে এই ভাষা-জমিদারিকে সমৃদ্ধ করে রাখে।” পাবনা জেলার কথ্য ভাষা নিয়ে লেখাটিতে আলোচনা-নমুনার উপরি পাবেন বিশুদ্ধ নস্টালজিয়া।

বাংলা ও বাঙালির সাম্প্রতিক ইতিহাসে সাতচল্লিশের মত সাল কমই এসেছে। সময়ের ধর্মে দগদগে ঘা মিটলেও the most unkindest cut এর স্মৃতি থেকে গেছে জাতির মনের গভীর গোপনে, ইতিহাস থেকে বর্তমানে। দেশভাগ-উদ্বাস্তুদের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা, সংগ্রাম, পারিবারিক ইতিহাস সংকলিত করতে বাঙালনামা চিরঅঙ্গীকারবদ্ধ। এবারের ‘বাঙালের ডায়েরি’তে উঠে এসেছে এমনই তিনটি ধারাবাহিক লেখা। ‘বাঙালবৃত্তান্ত’ ও ‘সেই সময়ের গল্প’-র নতুন পর্বের পাশাপাশি শুরু হল শহর কলকাতায় রিফিউজি শৈশব-কৈশোরের স্মৃতিসমৃদ্ধ, ভুঁইফোঁড়দের সুলুকসন্ধান।

গতবারের তেভাগা সংখ্যায় আমরা পুরোনো পত্রপত্রিকায় বেরোনো কিছু প্রবন্ধাদি নিয়ে শুরু করেছিলাম তেভাগা আর্কাইভ। এবারে দিনাজপুর, রংপুর, মেদিনীপুর, নাচোলের কৃষক-সংগ্রামের আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক দলিল এতে সংযোজিত হল। এছাড়া এই সংখ্যায় থাকল শচীনকর্তাকে নিয়ে জলসাঘর বিভাগের নতুন লেখা, সুকুমার সমাজপতির সাক্ষাৎকারটির শেষ অংশ, আমোদিনীর হঁেসেলের জিভে-জল-আনা চতুর্থ পর্ব।

***


সূচীপত্র

নিবন্ধ ঃ পূর্ববঙ্গের বাংলা উপভাষা
প্রসঙ্গ সিলেটি ভাষা – সঞ্জীব দেবলস্কর
পাবনা জেলার কথ্যভাষার কিছু নমুনা – সন্তোষ কুমার রায়

জলসা-ঘর
‘বর্ণে গন্ধে ছন্দে গীতিতে’ – ইন্দ্রনাথ মুখার্জী

সাক্ষাৎকার
আলাপচারিতায় সুকুমার সমাজপতি, শেষ পর্ব – অনির্বাণ দাশগুপ্ত

ধারাবাহিক
আমোদিনীর হঁেসেল, চতুর্থ পর্ব – দেবলীনা সেন


প্রচ্ছদ: মানালি রায় (ঝিঙ্কা)
১৩ই সেপ্টেম্বর, ২০১০

ধারাবাহিক ঃ বাঙালের ডায়েরি
বাঙালবৃত্তান্ত – রঞ্জন রায়
নবগঙ্গা থেকে আদিগঙ্গা, ভুঁইফোঁড়দের সুলুকসন্ধান – রবিদা
সেই সময়ের গল্প – সন্তোষ কুমার রায়

তেভাগা আর্কাইভ – সংযোজন
কৃষক সংগ্রামে এক অমর অধ্যায়, তেভাগার লড়াই – বিনয় চৌধুরী
অবিস্মরণীয় তেভাগা সংগ্রাম ও দিনাজপুর – সুশীল সেন
তেভাগা সংগ্রামের স্মৃতিকথা – মণি সিংহ (রংপুর)
মেদিনীপুরে তেভাগা সংগ্রাম – ভূপাল পান্ডা
তেভাগা নেত্রী কমরেড ইলা মিত্রের জবানবন্দী
তেভাগা আন্দোলন ও সলিল চৌধুরীর গান – সমীর কুমার গুপ্ত

Posted in বাঙালনামা সাময়িকী | 1 Comment »

তেভাগা সংখ্যা

Posted by bangalnama on June 1, 2010



সূচীপত্র

সম্পাদকীয় ।।

নিবন্ধ
তেভাগার আয়নায় কমিউনিস্ট পার্টি – দেবর্ষি দাস
তেভাগার পূর্বকাল উত্তরকাল – প্রণব দে
তেভাগার আন্দোলনে মেয়েদের ভূমিকা – অন্বেষা ভট্টাচার্য
তেভাগা ঃ দিশা ও উত্তরাধিকার – তপন বন্দ্যোপাধ্যায়

ফিরে দেখা
সংগ্রামী দিনের কয়েকটি কথা – কংসারি হালদার
তেভাগা আন্দোলনের পাশে – মণিকুন্তলা সেন


প্রচ্ছদ: অর্জুন মুখার্জী
১লা জুন, ২০১০

সাক্ষাৎকার
প্রাক্-কথন ঃ তেভাগার নারী ও ইলা মিত্র
আলাপচারিতায় মোহন মিত্র

সমালোচনা-নিবন্ধ
তেভাগা আন্দোলনের অ-লিখিত ইতিহাস – শঙ্কর রায়
ছঁেড়া খোয়াবের খাতা ঃ আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের খোয়াবনামা – সোহিনী

খন্ড-ইতিহাস
শ্রদ্ধেয় কংসারি হালদার স্মরণে – প্রভাস চন্দ্র মন্ডল
অবিস্মরণীয় আধিয়ার বিদ্রোহ – সুশীল সেন
শহীদ রাসমণির কাহিনী
১৯৪৭ সালের ১২ই মার্চ বঙ্গীয় আইনসভায় জ্যোতি বসুর প্রদত্ত ভাষণ

Posted in তেভাগা আন্দোলন, বাঙালনামা সাময়িকী | Leave a Comment »

বাঙালনামা ঃ তৃতীয় সংখ্যা

Posted by bangalnama on October 25, 2009


।। একটি বিশেষ বিজ্ঞপ্তি ।।Ye_Hai_Bombay_Meri_Jaan_Cover

কৈফিয়ৎ:
বারোমাসের তেরো পার্বণ এবং আরো কয়েকটি উপরি পালা-পার্বণ সামলে উঠে তৃতীয় সংখ্যা প্রকাশে একটু দেরি হয়ে গ্যালো। তবে এবারের চর্বিত-চর্বণের সম্ভার দেখে পাঠককুলের রসনা তৃপ্ত হবেই – এ নিছক আমাদের আশা-টাশা নয় এক্কেরে প্রত্যাশা।


শুরুটা না হয় করি সেই আদি-অকৃত্রিম প্রশ্ন দিয়েই– বাঙাল কে বা কারা? তারা দু’পেয়ের মতন ঢাকা জিলায় বাণিজ্য-বসত করে, নাকি চাইর পাও লইয়া চট্টগ্রামের (মগ)ডালে ডালে বিচরণ করে? বিংশ শতাব্দীতে যাবতীয় বাঙালির আড্ডায়-আলোচনায়-তর্কে যে শব্দটি এত বেশি বার উঠে এসেছে তার কি আদৌ কোনও ঐতিহাসিক বা সাহিত্যিক ব্যুৎপত্তিগত মানে আছে, না সেটি নিছকই কিছু মানুষের ভৌগোলিক রোম্যান্টিসিজ়ম? এ প্রশ্নের প্রিসাইজ় উত্তর দেওয়ার দাবি আমরা করলাম না, বরং প্রশ্নগুলোকেই ঝালমুড়ির একটু মশলা দিয়ে ঝাঁকিয়ে পরিবেশন করা হলো। এর সঙ্গে রইলো পশ্চিমবঙ্গে এসে নতুন ক’রে ঘর বাঁধা কিছু মানুষের কথা, রইলো ওপার বাংলার মানুষের পার্টিশন-পরবর্তী জীবনধারার উপর লেখা ‘দয়াময়ীর কথা’ নিয়ে কিছু আলোচনা। পার্টিশন-দাঙ্গার ইতিহাস নিয়ে শুরু হলো ধারাবাহিক গল্প ‘যুগসন্ধির চতুরঙ্গ’। প্রবন্ধের অচলায়তন ছেড়ে গল্পের মুক্তমঞ্চে বাঙালনামা’র পা রাখা শুরু হলো এর সঙ্গেই। রাখা হলো একাত্তরের বুদ্ধিজীবী হত্যার বীভৎস দিনগুলির ইতিহাসও। রাখা থাকলো স্বাধীনতার কবি শামসুর রহমানের সঙ্গে একটি অন্যরকম সাক্ষাৎকারের গল্পও।


গত সংখ্যাতে প্রকাশিত ‘পূর্ববাংলার নমঃশূদ্র আন্দোলন’ লেখাটিতে উল্লেখিত মুকুন্দবিহারী মল্লিকের জীবন ও কাজ নিয়ে একটি ব্যক্তিগত আলেখ্য আঁকলেন তাঁর প্র-দৌহিত্র কিঞ্জল। ‘মেরি জান মুঝে জান না কহো’-র ভারতবিখ্যাত গায়িকার কথা রাখা হলো; গীতা দত্তের কালজয়ী গানগুলি মনে আসতে আসতে আরও একবার মনে করে নিন তাঁকে ঘিরে থাকা aura–টিকেও। পৃথিবী জুড়ে ছড়িয়ে পড়া বাঙালির বিভিন্ন প্রজন্মের গল্প যিনি লিখে চলেছেন, সেই লেখিকা ঝুম্পা লাহিড়ির সাহিত্যের উপর রইলো একটি লেখা। থাকলো যাবতীয় লেখা নিয়ে আলোচনায় যোগ দেওয়ার আমন্ত্রণও।


আর, বাঙালদের কাগজ অথচ খাওয়াদাওয়া নিয়া কথা রাখুম না তাই কি হয় মশয়! আমোদিনীর হঁেশেলের ধারাবাহিক কিস্তিতে থাকলো কাঐনের চালের অপূর্ব স্বাদ আর আমাদা দিয়ে সন্দেশের রেসিপি- মধুরেণ সমাপয়েৎ।

সূচীপত্র:

গল্প হলেও সত্যি
খলসেকোটার গল্প – সোমনাথ রায়
স্বপ্নপুরণের কথকতা – বৃষ্টি সইদ

জলসা-ঘর
ইয়ে হ্যায় বম্বে মেরি জান – ইন্দ্রনাথ মুখার্জী

প্রবন্ধ
বাঙাল: শব্দার্থের সন্ধানে – আকাশ ও সোহিনী
আমার ডায়েরির পাতা থেকে – বাসুদেব আচার্য্য


প্রচ্ছদ: অভীক্স
২৫শে অক্টোবর, ২০০৯

প্রবন্ধ
Reclaiming the Margins of Faded Scrolls – Kinjal Dasbiswas
An Interpreter for the Bengali Diaspora – Sourav Chatterjee

বই আলোচনা
দয়াময়ীর কথা – ইন্দ্রাণী দত্ত

ধারাবাহিক
আমোদিনীর হেঁশেল – দেবলীনা সেন
যুগসন্ধির চতুরঙ্গ – নীলাভ্র ব্যানার্জী

Posted in বাঙালনামা সাময়িকী | 6 Comments »

বাঙালনামা ঃ দ্বিতীয় সংখ্যা

Posted by bangalnama on August 31, 2009


কৈফিয়ৎ: লোকে বলে বাঙালের গোঁ। তো জিদ আমাগো আছে মশয়- হাজারখানা ডিস্ট্র্যাকশন থাকুক, গতবারের প্রতিশ্রুতি মতন পুরবীয়াদের কীর্তি, ইতিহাস ও উত্তরাধিকার নিয়ে লেখা ছাপিয়ে যাবনা এমনটা ভাবলে সে ইলিশে ডিম নাই। এই পর্বে ফোকাস রাখা হল অমন ক’জন জেদি বাঙালের ওপর, যাঁরা ভাবীকালের পথ নির্মাণ করার অদম্য জেদে সমকালের কাছে ব্রাত্য হয়ে উঠেছিলেন। আর, সব ইতিহাস-ই তার আগের ইতিহাসের উত্তরাধিকার বহন করে। সেই সূত্র খুঁজতে চেষ্টা করা হল পন্ডিত শহীদুল্লাহের একটি অনুসন্ধানের পুনর্মুদ্রণে যেখানে স্মরণ করা হয়েছে চর্যাগীতির কবিদের, যাঁরা সেই আমলের ব্রাত্য ডোম, শবর, চন্ডাল, নেড়া বৌদ্ধদের জন্যে গান রচনা করছেন এমন এক প্রান্তিক ভাষায় যা পরে ডালপালা মেলে মহীরুহ-সম বাংলা ভাষা হয়ে উঠেছে। প্রান্তিক মানুষের লড়াই দেশ-কালে থেমে থাকেনা; তবু দেশ ও কালের বিশেষ পরিস্থিতি মানুষের বেঁচে থাকার বিবরণে নতুন দিশা এনে দেয়, প্রান্তিক বাঙালের ইতিহাসের সেই গৌরবময় অধ্যায়গুলিতে আরেকবার একটু টর্চ ফেলে দেখার চেষ্টা করলাম ব্রাত্য জনগোষ্ঠীর অধিকার ও মর্যাদার দাবিতে এক হয়ে ওঠার লড়াই – দেশভাগ নামক বিপর্যয়-এর আগে ও পরে – এই গেল মোটামুটি ভাবে এবারকার বাঙালনামার কর্মসূচী; আর ধারাবাহিক পর্বগুলো তো রইলই। ফলে সব মিলিয়ে সঙ্গে থাকুন; জানুন, জানান, জানিয়ে দিন।

সূচীপত্র

দীর্ঘ প্রবন্ধ: পূর্ববঙ্গের নমশূদ্র আন্দোলন
উন্নয়ন, বিভাজন ও জাতি : বাংলায় নমশূদ্র আন্দোলন, ১৮৭২-১৯৪৭
– শেখর বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রবন্ধ
আমার অবিশ্বাস ঃ হুমায়ুন আজ়াদ – বাসু আচার্য্য

The Refugee City: Partition and Kolkata’s postcolonial landscape – Debjani Sengupta

স্বাধীনতার বাষট্টি বছর
অলিন্দ যুদ্ধ ঃ ঢাকার এক তরুণের গল্প – অনসূয়া মিত্র
স্বাধীনতার অন্য মুখ ঃ বাংলা কবিতা ও গানে দেশভাগ – ত্রিদিব সন্তপা কুণ্ডু

বই আলোচনা
ব্রাত্যজনের রুদ্ধসংগীত ঃ দেবব্রত বিশ্বাস – সোহিনী

ধারাবাহিক
বাঙালবৃত্তান্ত – রঞ্জন রায়
নিষিদ্ধ নামের সন্ধানে ঃ একটি আপৎকালীন পরিশিষ্ট – বাসু আচার্য্য
আমোদিনীর হেঁশেল – দেবলীনা সেন
Marichjhapi – Uncovering the Veil of Silence – Jhuma Sen

আর্কাইভ : পূর্বপ্রকাশিত প্রবন্ধ
প্রাচীন বাংলা-লেখকগণ: তান্ত্রিক বৌদ্ধ লেখক লূইপাদ, বিরূপাদ, শবরীপাদ

– মুহম্মদ শহীদুল্লাহ, ‘শনিবারের চিঠি’, ফাল্গুন, ১৩৫৪ (খ্রী: ১৯৪৭)
পূর্ববাংলায় নকশাল আন্দোলনের প্রভাব
– আমজাদ হোসেন, ‘নকশালবাড়ি আন্দোলনের প্রামাণ্য তথ্য সংকলন’ (১৯৮৯)

৩১শে অগস্ট, ২০০৯

Posted in বাঙালনামা সাময়িকী | Leave a Comment »

বাঙালনামা ঃ প্রথম সংখ্যা

Posted by bangalnama on July 6, 2009


»আমাদের কথা
 কৈফিয়ৎ

»ফিচার ১: দেশ, জাতি, বাঙালী ও বাঙাল
 বাঙালত্ব বাঙালীত্ব নিয়ে কয়েক ছত্র প্রলাপ — দেবর্ষি দাস
 বাঙালির জাতিবিদ্বেষ ১৯০৫: গৌরব না লজ্জা — বোধিসত্ত্ব কর

»ফিচার ২: কাঁটাতার পেরিয়ে, ব্যারিকেড পেরিয়ে
 The Waiting Rooms of History — Debjani Sengupta
 Partition Experiences of the East Bengali Refugee Women — Tridib Santapa Kundu

»প্রবন্ধ: কথা-সাহিত্যে বাঙাল
 হিমু — ঋতেন মিত্র
 Amitav Ghosh’s Works – A Literary Postmortem — Dibyakusum Ray

»ধারাবাহিক
 The Silence of Marichjhapi — Jhuma Sen
 (বাঙালনামায় পূর্বপ্রকাশিত) নিষিদ্ধ নামের সন্ধানে — বাসু আচার্য্য (১ম খন্ড২য় খন্ড)
 আমোদিনীর হেঁশেল — দেবলীনা সেন

»বই সমালোচনা
 আমার ফাঁসি চাইঃ মতিয়ুর রহমান রেন্টু — সোমনাথ রায়

 ৬ই জুলাই, ২০০৯

ঋত্বিক ঘটকের 'কোমল গান্ধার' ছবি থেকে পূর্ববাংলা সীমান্তের একটি দৃশ্য

Posted in বাঙালনামা সাময়িকী | Tagged: | Leave a Comment »

The Silence of Marichjhapi

Posted by bangalnama on July 6, 2009


DSC00865

“Millions of babies in pain
Millions of mothers in rain
Millions of brothers in woe
Millions of children nowhere to go”

—Allen Ginsberg (September on Jessore Road)

Transnational migration is experienced as a double loss — of origin and of reality; a ‘hyperreality’, as it were.  The representation of identity is, therefore, an ongoing process because immigrant identities are continually being transformed by the journey, their subjectivities being recomposed in ‘different practices and sites of experience’. Thus ‘home’ itself may be experienced in movement and has come to be conceptualized in fluid terms. The immigrants’ experience of the present is coloured with a persistent desire for return, a sense of deep nostalgia for their homeland.[1] Therefore, when thirty thousand migrants from Dandakaranya reached the small island of Marichjhapi to the south of Kumirmari of Sundarbans in April 1978, their primary desire was to settle down to conceptualize carefully what could be called ‘home’ in an altered reality.  The otherwise self-sufficient community life that took birth without the cooperation of the midwife named State could not, however, survive the rage of the establishment post 1979. It was then that Marichjhapi was successfully annihilated; silenced beyond a murmur.  This piece of semi-academic work shall try its best to document that voice of Marichjhapi before the silence. Marichjhapi, unfortunately has not been as well documented as Nandigram or if we look beyond national boundary, the Nazi Holocaust. However in recent times, owing to the persistent efforts of a fraction of the academia and intelligentsia like Ross Mallick, Annu Jalais, Tushar Bhattacharjee, Mahasweta Devi, Sunil Gangopadhyay and Jagadish Chandra Mandal, Marichjhapi has received a voice. Needless to say I have heavily relied on the available materials and documents to ponder why Marichjhapi Massacre happened and why Marichjhapi is still shrouded in silence.

Read the rest of this entry »

Posted in ইস্টবেঙ্গল, উদ্বাস্তু ও জবরদখলকারী, কলোনী, ক্যাম্প, পরিযাণ, বাঙালনামা সাময়িকী | Tagged: , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , | 44 Comments »

 
%d bloggers like this: